-->

মাত্র ১৩ হাজার টাকায় মাথা নষ্ট ফোন - Oukitel C21 Price And Specifications

১৩ হাজার টাকায় মাথা নষ্ট ফোন। চমকের পর চমক ! | Oukitel C21 Price in Bangladesh.

প্রিয় বন্ধুরা, আজকে আপনাদের সাথে শেয়ার করতে যাচ্ছি দারুন একটা এক্সসাইটিং ফোন রিভিউ। এমন একটি ফোন যেটি দেখতে শুনতে গুনে ও মানে অন্য কোন নামি দামি ফোনের চেয়ে কোন অংশেই কম নয়, বরং অন্য ব্রান্ডেড দামি ফোনের চেয়েও এর কোয়ালিটি ও ফিচার অনেকটাই ভালো। আর সেই তুলনায় এত্ত সুন্দর একটা ফোনের দামটাও বাজেটের মধ্যেই। মাত্র তের হাজার টাকা। 

Oukitel C21 Price And Specifications


১২ থেকে ১৫ এর মধ্যে যারা একটি স্পেশাল ফোন কেনার অপেক্ষায় আছেন বা এতদিন সুযোগটাকে খুঁজে বেড়াচ্ছিলেন তাদের অপেক্ষার পালা বুঝি এবার শেষ হতে চলেছে। কারন এই বাজেটে এত্ত সুন্দর অলরাউন্ডার এই ফোনটি আপনার জন্য একটি বেষ্ট ডিল হবে। 

যাইহোক, চলুন একে একে এই চমৎকার ফোনটির খুটিনাটি ( Oukitel C21 Features ) জেনে নিই:

ডিসপ্লে (Display): ফোনটিতে পাবেন অসাধারন এক ডিসপ্লে। Oukitel C21 Display দেখে সত্যেই আপনি কে চমকে যাবেন। মাত্র তের হাজার টাকার ফোনে 6.4'' FHD+ Hole Punch Display যার সম্পূর্ণটাই ফুল এইচডি ও 400 PPI যার ব্রাইটনেস 800 । সত্যিই চমকে যাবার মত।  মাত্র তের হাজার টাকার ফোনে এমন একটা ফিচার সত্যিই ভাবাই যায় না।

কালার (Colors): ফোনটির কালারের ভিন্নভাবে প্রশংসা না করলেই নয়। ভিউ এবং এ্যাঙ্গেল থেকে সব ভাবেই দারুন এবং নজড় কারা মোট ৩ টি কালারে রঙিন করে দেওয়া হয়েছে ফোনটিকে। উকিটেল সি ২১ এর কালার গুলি হচ্ছে নিয়ন পারপল (Neon Purple), মিডনাইট ব্লাক (Midnight Black) ও অসিন ব্লু (Ocean Blue)।

রেজ্যুলেশন (Regulation): একই দামের অন্যান্য নামি দামি ফোনে যেখানে ডিসপ্লে রেজুলেশান থাকে মাত্র ৭২০ পিক্সেল আর PPI ২৬০-২৭০ পর্যন্ত। সেখানে এই ফোনটিতে রয়েছে 403 PPI। সবচেয়ে মজার যেই বিষয় এই দামের একটি ফোনে আপনি পাচ্ছেন 4K ষ্টাইলের ভিডিও রেকর্ডিং এর সেরা সুবিধা। কারণ ফোনটিতে রয়েছে 2310x1080 Full HD+ Display । ভাবুন তো এটা কি ভাবা যায়! সরাসরি সুর্যের আলোতেই ফোনটিতে দিব্যি কাজ করা যায় দেখে আরও মুগ্ধ হয়ে যাবেন।

কভারস এন্ড বাটনস (Covers & Buttons): উপর দিকে রয়েছে Projectivity Censor ডানদিকে রয়েছে ভলিউম রকার এবং পার বাটন। বাম দিকে সিন্ট্রে, আর নিচের দিকে যেটা আছে সেটা শুনলে অবাকই হবেন। হ্যা বন্ধুরা, টাইপ সি চার্জিং পোর্ট। বিশ্বাস করতে পারেন মাত্র তের হাজার টাকার একটা ফোনে পাওয়া যাচ্ছে টাইপ সি পোর্ট ! 

নিচের ডান দিকে পেয়ে যাচেন স্পিকার গ্রিল আর বা দিকে মাইক্রোফোন। আমাদের রিভিউনিটি তে অবশ্য ৩.৫ মিলিমিটার কোন হেডফোন জ্যাক নাই, তবে ফোন কোম্পানী জানিয়েছেন যে তারা পরবর্তী আপডেটে ৩.৫ মিলিমিটার হেডফোন জ্যাক নিয়ে আসবেন। 

তবে ব্যাক সাইজ প্লাষ্টিক ফিল্ড হওয়ায় প্রিমিয়াম ফিল্ড একটুখানি মাইনাস হয়ে গেছে। তবে দামের সাথে ‍তুলনা করলে ও অন্যন্য ফিচারগুলি বিবেচনা করলে এটাকে শান্তনা হিসেবে ধরেই নিয়ে নেওয়া যায়।  

তবে হ্যা, ফোনটিকে আরও গর্জিয়াস করে তুলিতে ও প্রটেকশান দিতে বক্সের মধ্যে ফ্রি থাকছে দারুন একটি সিলিকন কেস।

ওজন (Weight): ওয়েট ব্যালেন্স খুবই ভালো। হাতে ধরতে বেশ সাচ্ছন্দ বোধ করবেন। ফোনটা খুবই হালকা পাতলা গঠনের। বলতে পারেন স্লিম ফিগারের ফোন। যার পুরুতে রয়েছে মাত্র ৮.৭ মিলিমিটার আর ওজন মাত্র ১৭৫ গ্রামের মতো। 

প্রসেসর (CPU): মাত্র ১৩০০০ টাকা দামের ফোনটিতে ব্যবহৃত সিপিইউ পাওয়ারটাও অবাক হবার মত। যুক্ত করে দেওয়া হয়েছে অকটোর সিপিইউ ( Helio P60 Octa-Core Processor ) ।

মেমোরী (Memory): ফোনটিতে যুক্ত করা হয়েছে ৪ জিবি র‌্যাম , এবং ইন্টারনাল মেমোরীতে পাবেন ৬৪ জিবি, তবে আপনি চাইলে এর ডিডিকেটেড মাইক্রোএসডিকার্ড সল্ড ব্যবহার করে ২৫৬ জিবি পযন্ত এক্সটারনাল মেমোরী ব্যবহার করতে পারবেন। 

অপারেটিং সিষ্টেম ও ভার্সন: ফোনটিতে এন্ড্রয়েড এর লেটেস্ট ভার্সন ১০ ব্যবহার করা হয়েছে। শক্তিমানের প্রসেসরের সাথে লেটেস্ট ভার্সন দারুনই বলা চলে।

ক্যামেরা (Camera): এই বাজেটে সেরা এক সেলফি ক্যামেরা হতে পারে এই Oukitel C21. ব্যবহারেই চমকে যাবেন সামনে থাকা 20MP AI Selfie ক্যামেরা এবং পেছনে থাকা  16MP Quad Camera । মাত্র ১ টা টাচে হাই রেজুলেটেড ইমেজ ও ফুল এইচডি ভিডিও এখন যখন তখন। সামনে রয়েছে কোআর ক্যামেরা সেটাপ, মূল সেন্সরটি ১৬ মেগা পিগ জেলের, আরো রয়েছে ২ মেগা পিগজেলের মেক্রোডেট সেন্সর সহ এডিশনাল আরো একটি অকজিলারি সেন্সর। 

তবে মিছ করছি একটা ওয়াইড এঙ্গেলের লেন্স, এটা দিলে একে বারে ষোল কলা পূণ হতো আর কি। তবে যাই হোক ছবির কোয়লিটি সত্যি অবাক হবার মত। বিশেষ করে ছবির কোয়ালিটি এতটাই ভাল যে অনেক নামি দামি ফোনের কাছাকাছি। জোর দিয়ে বলা যায় যে এই ফোন দিয়ে তোলা ছবি গুলো দেখে কেউ বলতে পারবে না যে এটা এই দামের ফোনে তোলা ছবি। 

গেমিং (Gaming): গেমিং এর মজা এমন ফোনে নেওয়া যাবে না তাকি হয়! আপনার ফেভারিট FreeFire, PubG যতগুলি লাইভ গেমগুলি রয়েছে খেলতে পারবেন মজার সাথে এবং ল্যাগিং ছাড়াই। 

ব্যাটারি (Battery): ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ৪০০০ Mha Battery। যেটা আমার কাছে মনে হয়েছে ঠিকঠাকই তো আছে কারন ব্যাটারী বাড়াতে গেলে এটা আরো মোটা হয়ে যেত। দেখতে বেমানান লাগতো আর কি। তো সেই হিসাবে ৪ হাজার খুব একটা খারাপ না। আপনি যদি নরমাল ইউজার হয়ে থাকেন তাহলে সিঙ্গেল চার্জে সারাদিন চলে যাবে, কোন ইস্যু নেই, কিন্তু আপনি যদি হেভি ইউজার হন তাহলে হয়তো দিন শেষে আর একটা চাজ দেওয়া লাগবে।

বক্সে একটা পিআউট চার্জার পেয়ে যাবেন, যেটা দিয়ে চার্জ করতে মাত্র দুই ঘন্টার মতো সময় লাগবে। সিকিউরিটি হিসাবে এর পেছনের রয়েছে ফিঙ্গার প্রিন্ট এর ব্যবস্থা যেটা ক্যামেরার সাথে সংযুক্ত করা হয়েছে, আর ফেস আনলক তো রয়েছেই। 

গড়ম সমস্যা (Heating Issue): ঠিক আছে এবার এর হিটিং ইস্যু নিয়ে টুকটাক কিছু কথা বলে রাখা দরকার, এটা গেমিংয়ের সময় আর চাজিংয়ের সময় বেশ ভালোই গরম অনুভব হয়েছিলো। তবে তা একেবারে ভয় পাওয়ার মতো কিছু না। নতুন নতুন ফোনে অনেক সময় এই রকম হয়। আমরা জানি আস্তে আস্তে এটা নরমাল হয়ে যায়। আশা করবো পরের সফটওয়্যার আপডেটের সময় হিটিং ইস্যুর সমস্যা টা সমাধান করা হবে। 

মূল্য ( Oukitel C21 Price): ফোনটির জন্য অফিশিয়াল বাজার মূল্য ধার্য্য করা হয়েছে ১২,৯৯৯/- টাকা। সাথে থাকছে ১ বছরের বিক্রোয়োত্তর সেবা মানে ১ বছরের ওয়ারেন্টি।

অফিশিয়াল ওয়েবসাইট (Official Website): https://oukitel.com/pages/c21

Tags: Oukitel C21 Price, Oukitel C21 online Bangladesh, Oukitel C21 Features, Oukitel C21 Configuration, Oukitel C21 System Configuration.

SeeCloseComments
Cancel