-->

Huawei Y8P Price AND Full Specifications

Huawei Y8P Price AND Full Review in Bangla

বন্ধুরা গুগলের অভিমান না ভাঙ্গিয়েই Huawei আবারো বাজারে নিয়ে এলো তাদের আরও একাটি নতুন মিড রেঞ্জের স্মার্টফোন Huawei Y8P । আজ আমরা কথা বলবো গুগল ছাড়া পথ চলা সেই ফোনের ভালো মন্দ সবকিছু নিয়ে। 2020 সালে এসে প্লে স্টোর ছাড়া কেমন চলবে বা কেমন হবে তার বিচরণ। কারন মনে হচ্ছে না যে Huawei ব্যাপারটাকে মোটেও পাত্তা দিচ্ছেতারা একের পর এক মোবাইল ফোন বাজার জাত করে চলেছে।  চায়না মার্কেটগুলি ছাড়াও বিশ্ব বাজারেও তারা নানা রকম নতুন ফোনের আগমন ঘটে যাচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশেও এবার নিয়ে এসেছে Huawei Y8p নামের নতুন একটি মেবাইল ফোন। 

Huawei Y8P Price AND Full Specifications by BDHELP24.com

ডিসপ্লে (Display) : ফোনটার চেহারা সুরুত নিয়ে  প্রথমে কিছু কথা বলতেই হয়, কারন কথাই আছে প্রথমে দর্শনদারী পরে গুণবিচারী।  খুব ফ্রেশ একটা ফিল আপনি পাবেন, সেই সাথে বিল কোয়ালিটি Hauwei ফোন গুলোতে যেটা হয়ে থাকে। ওয়েট ডিসট্রিবিউশন ভালো এক হাতে ব্যবহার করতে তেমন কোনো সমস্যা হবে না আপনাদের। 6.3 ইঞ্চি এলইডি OLED প্যানেল ব্যবহার করা হয়েছে যেটা ফুল এইচডি রেজুলেশন। এর পিপিআই 418. ফলে খুবই ভালো মানের ছবি পাবেন এতে এ ব্যাপারে কোন সন্দেহ নেই আমাদের। ফোন টাচ রেসপন্স আপনাকে মুগ্ধ করবে বলেই মনে করছি। ডে নাইটে ডিসপ্লের ব্রাইটনেস খুবই ভালো ছিল তাই কমপ্লেইন করার মত তেমন কোনো ইস্যু আমরা খুঁজে পাওয়া না গেলেও আজকালকার ফোনে হাই রিফ্রেস রেটের একটা ট্রেন্ড চলছে যেটা এখানে খুজে পাওয়া যায়নি। এটাকে একটা অভিযোগ বলা যেতে পারে। তবে তা ফোনের সাথে সর্ম্পক ছিন্ন করার মতো না।

কালার (color) : দুইটি কালারে পাওয়া যাচ্ছে ফোনটি। ব্লাক এবং ক্রিষ্টাল।

বাটন (Button and Rockers) : উপর দিকে রয়েছে 3.5 মিলিমিটারের অডিও জ্যাক এবং ডেডিকেটেড সেকেন্ডারী মাইক্রোফোন। নিচের দিকে পেয়ে যাবেন স্পিকার গ্রীল। সেই টাইপ সি পোর্ট এবং মেইন মাইক্রোফোন। পেছনে রয়েছে প্রচুর ফিঙ্গারপ্রিন্ট ম্যাগনেট কাজেই অবশ্যই ব্যাক কভার ব্যবহার করেতই হবে। 

প্রসেসর (Procecor) : ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে Huawei এর নিজস্ব কিনিং 710F যেকিনা 12 ন্যানোমিটার আর্কিটেকচার এর সাথে অক্টাকোর সিপিও এবং মালি g51 GPU. 

RAM : ফোনটিতে র‌্যাম থাকছে  6GB.

মেমেরাী (Memory) : মেমোরি 128 জিবি, সাথে রয়েছে হাইব্রিড কার্ড স্লট এর ফলে আপনি দুইটা সিম ব্যবহার করতে পারবেন। তবে এর মেমোরী নিয়ে আর একটা কাহিনী আছে সেটা হচ্ছে যে আমাদের সর্বাধিক প্রচলিত মাইক্রো এসিডি কার্ড ব্যবহার করতে পারবেন না তার পরিবর্তে এতে ব্যবহার করতে হবে Huawei এর ন্যানো মেমোরী কার্ড। যদিও এই বিষয়টি আমাদের এই অঞ্চলে এখনো বহুলভাবে ব্যবহৃত না। তার মানে ঘুরে ফিরে বলতে হচ্ছে যে এই ফোনে আপনি অন্য কোন মেমোরী ব্যবহার করতে পারবেন না। বিষয়ট দুঃখ জনক হলেও সত্য ঘটনা।  তবে যেহেতু 128 জিবি ইন্টারনাল মেমরি দেয়া হয়েছে সুতরাং মনে হয় যে সাধারণ ইউজার যারা আছে তাদের জন্য এটাই যথেষ্ট হওয়ার কথা। তবে আমার কথাই তো আর শেষ কথা নয়। আপনাদের নিজস্ব চিন্তা চেতনাও  বিকাশ মান বলা চলে।

সফটওয়্যার (Software) : অ্যান্ড্রয়েড টেন এর সাথে এতে রয়েছে হুয়াওয়ের নিজস্ব ইএমইউআই 10.1 আর কিছু থাকে না কেন গুগল সার্ভিস এটা নিয়ে পরে আসি তার আগে চলুন দেখে আসি। …স্কোর এ  153000 এর কিছু বেশি স্কোর পাওয়া গিয়েছে এটির আর গীকবেঞ্চ সিঙ্গেল করে 327 এবং মাল্টি করে 1362 স্কোর করেছে এই ডিভাইজটি।  প্রাইজ পয়েন্ট যদি  কনসিডার করেন তাহলে এর পারফরম্যান্সে আপনি খুব একটা খুশি নাও হতে পারেন।  কারণ এই বাজারে কিন্তু আরো বেশি পারফরম্যান্সের ফোন রয়েছে এখন। কাজেই ১০/১০ পেতে হলে ফোনটাকে আরো বেশি পারফরমেন্স দেখানো প্রয়োজন। 

গেম (Game) : ফোনটার সফটওয়্যার অপটিমাইজেশন খুব ভালো ফলে প্রায় সব ডিভাইজে প্রায় স্মুথ একটা ফিল পাওয়া যাবে। তবে লং ট্রামে একটা লেকের দেখা আপনি পেয়েও যেতে পারেন। সেটা অবশ্য খুব বেশি বিরক্ত আপনাকে করবে না। মাল্টিটাচিংয়েও বেশ ভালো দক্ষতা দেখাবে। ওভার অল চিন্তা করলে খুব খারাপ বলার মতো সুযোগ আপনি পাবেন না। পাবজি তে খেলতে গেলে ডিফল্ড ব্যালান্স এবং ফ্রেম রেট মিডিয়ামে পাবেন। তবে আপনার মন যদি চায় সেক্ষেত্রে গ্রাফিস এইসডি এবং ফ্রেম রেট হাই তে দিতে পারবেন। ফ্রি ফায়ারে গ্রাফিসসে সব গুলো অপশন চালু করে দিয়েও খেলতে পারবেন। যদি ডিফল্ড এ আপনি আল্ট্রা পাবেন। 6.3 ইঞ্চি OLED ডিসপ্লে হওয়ার কারনে গেম খেলে আপনি বেশ হাসি খুশি মুডেই থাকবেন বলে আশা করা যায়। তবে কিছু লেক আর ডট লক্ষ করবেন। আর হিটিং বিষয়টি খেয়াল করার মতো। বেশ কিছুক্ষন গেম নিয়ে মাতামাতি করলে ফোনটি ভালোই গরম হয়ে যাচ্ছে। যেটা আপনি হয়তো Huawei মতো কোম্পানীর কাছে আশা করেবেন না। 

ক্যামেরা (Camera) : মেইন সেন্সরটি 48 মেগাপিক্সেলের সাথে আছে একটি 8 মেগাপিক্সেলের ওয়াইড এঙ্গেলের সেন্সর এবং 2 মেগাপিক্সেলের ডেপ সেন্সর। তবে আপনি মনে মনে ভাবতেই পারেনর যে ফোনটিতে ডেপ সেন্সর খুব একটা কাজের না তার বদলে যদি একটা ম্যাক্রো সেন্সর দিতো হয়তো ভালো হতো। কি আর করবেন ভাবনাটাকে মনের অগচরে রেখে দিতে হবে কারন আপনি চাইলেই তো আর Huawei এর কাছে থেকে বদল করে নিয়ে আসতে পারবেন না। তবে ছবির মান কোম্পানীটির অন্য ফোনগুলোর মতোই। দিনের আলোতে বেশ ভালো ছবি আপনি তুলতে পারবেন। কালার গুলো ন্যাচারাল হওয়াতে বেশ ভালো লাগবে। তবে ডায়নামিক রেশিওটা আর একটা ভালো পাওয়ার আশা আপনি করতে পারেন। প্রটটেড মুডে সাবজেক্ট সেপারেশন আপনার কাছে এভারেজ মনে হতে পারে। লোলাইটে ছবির মান তেমন একটা আশানুরুপ মনে নাও হতে পারে। কিছু কিছু সময় নয়েজ এবং ডিটেল এর ঘাটতি চোখে পরতে পারে। তবে ভালো লাগার মতো বিষয়টা হলো এতে এপারেচর নামের একটা অপশন রয়েছে যেটা ব্যবহার করে সাবজেক্ট ঠিক রেখে বেশ আর্টিসটিক ছবি আপনি পাবেন। সামনে 16 মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে, যেটা 2.0 এপারেচরের। ছবির মান নিয়ে খুব বেশি উচ্ছাসিতো আপনি না হলেও কাজ চলবে। প্রচুর আলো যদি সরবরাহ করেন তাহলে খুব সুন্দর ছবি আপনি পাবেন। যেটা অল্প আলো তে নাও হতে পারে। তাই বলা যেতে পারে যদি থাকে বেশি আলো তাহলে এই ফোনের ক্যামেরার গল্পটাও হবে ভালো। ভিডিও করা যাবে সর্বচ্চ 30 এপিএসে।

ওজন (Weight) : ফোনটা হাতে নিয়ে প্রথম স্লিম বডি ক্লিন লুক এবং খুবই হালকা পাতলা ফোনটার ওজন মাত্র 165 গ্রাম।  থিকনেছ মাত্র 8 মিলিমিটার। 

ব্যাটারী (Battery) : 4000 Mha এর ব্যাটারী ফোনটার সাথে জুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। যা কিনা আপনাকে সিঙ্গেল চার্জে সারাদিন পাওয়ারফুল রাখতে পারে। কিন্তু যদি আপনি হেভি ইউজার হন, সেক্ষেত্রে আপনাকে দিন শেষে আরো একবার চার্জ দেওয়া লাগতে পারে।

স্পিকার (Speaker) : লাউড স্পিকার কোয়ালিটি বেশ ভালো। ফুল ভলিয়মেও সাউন্ড ডিসট্রয়েড হয়না।

দাম (Price) : অফিসিয়াল দাম ধরা হয়েছে ২৫০০০ টাকা।

সমস্যা সংকান্ত তথ্য (Problem Information) : ফোনের বক্সে আপনি পাবেন মাত্র 10 ওয়াটের একটা চার্জার। না ভাই এটা মেনে নেওয়ার মতো ঘটনা না । কারন আজ কালকের ফোনে কুইক চার্জারের প্রচলন চলছে। ফোনটাতে আপনি গুগলের প্লে স্টোর ব্যবহার করতে পারবেন না। তাছাড়া ফেসবুক টুইটার ব্যবহার করতে পারবেন। ইউটিউব যদি ব্যবহার করতে চান সেক্ষেত্রে সরাসরি ব্রাউজার থেকে আপনাকে ব্যবহার করতে হবে। অন্য সব এ্যাপ গুলো পেয়ে যাবেন ফোনটাতে। তবে গুগল ছাড়া আপনি ফোনটি ব্যবহার করবেন কিনা এটা আপনার একান্ত সিদ্ধান্ত। আশা করছি বিচার বিশ্লেষণে আপনি যথেষ্ট সমৃদ্ধ।

HUAWEI Y8P Price List:

 

HUAWEI Y8P Price in Bangladesh BDT. 25000/-

HUAWEI Y8P Price in India RS. 19999/-

HUAWEI Y8P Price in Pakistan PKR. 32,199/-

 

Tags: HUAWEI Y8P Price, HUAWEI Y8P Price in bd, HUAWEI Y8P Price in Bangladesh, HUAWEI Y8P Price in India, HUAWEI Y8P Price in Pakistan, HUAWEI Y8P Full Phone Specifications, HUAWEI Y8P Latest Price, HUAWEI Y8P Features, HUAWEI Y8P Review, HUAWEI Y8P Unboxing and Review, HUAWEI Y8P Official Price, HUAWEI Y8P Online Price.

SeeCloseComments
Cancel